English    ফটো গ্যালারি    ভিডিও গ্যালারি
শিরোনাম :
শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ করছে জাতি      ঢাবির প্রশ্ন ফাঁসে জড়িত সন্দেহে আটক ১০      বাংলাদেশ ভ্রমণে যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার সতর্কতা      বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে খালেদা জিয়া’র শ্রদ্ধা      এবার জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী করতে চায় ওআইসি      শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে রাষ্ট্রপতির শ্রদ্ধা      প্যারিসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা      
আরো তিনটি ব্যাংক অনুমোদন পাচ্ছে : অর্থমন্ত্রী
Published : Tuesday, 28 November, 2017 at 12:04 PM, Count : 1227
আরো তিনটি ব্যাংক অনুমোদন পাচ্ছে : অর্থমন্ত্রীনিজস্ব প্রতিবেদক : প্রচুর অঞ্চল ব্যাংক সেবার বাইরে থাকার কারণে বাংলাদেশে নতুন আরো তিনটি ব্যাংকের অনুমোদন দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। সোমবার রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন (বিআইএ)ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউশন ফর প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট (বিআইপিডি) আয়োজিত সেমিনার শেষে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক ব্যাংক আছে। তারপরও প্রচুর অঞ্চল রয়েছে যেগুলো ব্যাংক সেবার বাইরে। যারা এখনো ব্যাংকিং সুবিধা পাচ্ছে না। এ কারণেই নতুন ব্যাংকের অনুমোদন দেওয়া হচ্ছে। অনেকগুলো ব্যাংক একীভূত (মার্জ) করার চেষ্টা চলছে। এছাড়া ব্যাংকগুলোর তারল্য সংকট কাটাতে সরকার কাজ করছে।

এর আগে বিআইএ কর্তৃক আয়োজিত সেমিনারে অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ইন্স্যুরেন্সের বিশেষ অবদান রয়েছে। বিশেষ করে অর্থনীতির যে প্রবৃদ্ধি হয়েছে সেখানে ইন্স্যুরেন্স খাত ভূমিকা রেখেছে। তবে যতটা ভূমিকা রাখার কথা ছিল সেটা হয়তো হয়নি।

তিনি বলেন, ব্যাংক ইন্স্যুরেন্স বাধ্যতামূলক করা ছাড়াও বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স একাডেমিকে (বিআইএ) সক্রিয় করা, বীমা কোম্পানির নবায়ন ফি সহনীয় করা এবং এনজিওরা যেন বীমা করতে না পারে সেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দেশের বীমা খাত অবহেলিত উল্লেখ করে আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, এটা আমাদের দূর্বলতা। এই সেক্টরকে আরো অনেক দূর এগিয়ে যাওয়া দরকার ছিল কিন্তু সেটা হয়নি। আমরা এই সেক্টরকে অবহেলা করেছি। সেটা ঠিক হয়নি। দেশকে এগিয়ে নিতে হলে এই ইন্ড্রাস্টির বিকাশ ঘটাতে হবে। দেশের বীমা কোম্পানির সংখ্যা অনেক। সেই তুলনায় ব্যবসার বিস্তৃতি ঘটেনি। যে কারণে বীমা খাতের উন্নয়নে অনেক কাজ করার আছে।

বাংলাদেশ ইন্সুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ কবিরউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইডিআর এর চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান পাটোয়ারি, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব ইউনুসুর রহমান, ক্রীড়া সচিব মো. আসাদুল ইসলাম প্রমুখ।






Join With Us
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৪৫/৩, বীর উত্তম সি.আর.দত্ত রোড (ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, সোনারগাঁও রোড), হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫, বাংলাদেশ।
ফোনঃ +৮৮-০২-৯৬৬৬৬৮৫, ৯৬৭৫৮৮৫, ৯৬৬৪৮৮২-৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৯৬১১৬০৪, হটলাইন : +৮৮০-১৯২৬৬৬৭০০২-৩
ই-মেইল : pressgonokantho@yahoo.com, gonokanthomofossal@yahoo.com, editorgonokantho@yahoo.com, web : www.gonokantho.com.bd